• শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
  • ||
শিরোনাম

ইস্তাম্বুলে বিপুল ভোটে জয় এরদোয়ান বিরোধীর

প্রকাশ:  ০৩ এপ্রিল ২০২৪, ০০:২৩
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক

তুরস্কের ইস্তাম্বুলের মেয়র পদে নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ানের ক্ষমতাসীন একেপিকে বিপুল ভোটে হারিয়ে দিয়েছেন বিরোধী রিপাবলিকান পিপলস পার্টির (সিএইচপি) প্রার্থী বর্তমান মেয়র একরাম ইমামোগলু।

রবিবার (১ এপ্রিল) স্থানীয় নির্বাচনে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন বলে ঘোষণা দেন তিনি। এদিন স্থনীয় সময় সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

এদিন ৮১টি প্রদেশের মেয়র নির্বাচন ছাড়াও প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য ও স্থানীয় সরকারের অন্যান্য প্রতিনিধি বাছাইয়ে ভোট গ্রহণ করা হয়। ভোটার ছিলেন ৬ কোটি ১০ লাখ।

একরাম ইমামোগলু বলেন, ‘‘আমরা দশ লাখের বেশি ভোটের লিড নিয়ে প্রথম অবস্থানে রয়েছি। মূলত: আমরা এই নির্বাচনে জিতে গেছি।’’

তিনি বলেন, ‘‘সেখানে এরইমধ্যে ৯৬% ভোট গণনা করা হয়েছে।’’

রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম আনাদোলুর খবরে বলা হয়েছে, তুরস্কের ৮১টি প্রদেশের মধ্যে ৩৬টিতে এগিয়ে ছিল সিএইচপি। এর অনেকগুলোই একে পার্টির শক্তিশালী ঘাঁটি।

২০১৯ সালে ইমামোগ্লুর কাছে হেরে যাওয়ার পর থেকে নগরটি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ানের ক্ষমতাসীন একেপির লক্ষ্যের তালিকায় শীর্ষে ছিল।

দুই দশকের বেশি সময়ের মধ্যে প্রেসিডেন্ট এরদোগান ও তার দল একে পার্টির জন্য এটিকে সবচেয়ে বড় পরাজয় বলে মনে করা হচ্ছে।

১৯৯০-এর দশকে নিজের শহর ইস্তাম্বুলের মেয়র ছিলেন এরদোয়ান। এবার নিজের সেই জায়গা আবারও ফিরে পাওয়াই ছিল তার মূল লক্ষ্য। তবে তাতে ব্যর্থ হলেন তিনি।

পরাজয়ের পর রাজধানী আঙ্কারায় একেপি সদর দপ্তরে জড়ো হওয়া জনতাকে উদ্দেশ করে এরদোগান বলেন, আমরা যদি ভুল করে থাকি তবে তা সমাধানের চেষ্টা করব। আমাদের কোনো ঘাটতি থাকলে তা পূরণ করব। পরাজয় থেকে শিক্ষা নেবে দল, ফলাফলের পর সমর্থকদের উদ্দেশে এমন বার্তাও দেন তিনি।

ইস্তাম্বুলভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান এডামের পরিচালক সিনান উলগেন অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে বলেন, ‘‘দেশের বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থার জন্য ক্ষমতাসীন দলকে শাস্তি দিতে ভোটারদের ইচ্ছার প্রতিফলন বিস্ময়কর এ ফলাফল।’’

এ নির্বাচনকে ‘‘ইমামোগলুর জন্য এক সন্ধিক্ষণ’’ বলেও বর্ণনা করেন তিনি।

সিনান উলগেন বলেন, ‘‘আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইমামোগলু বিরোধীদের সাধারণ প্রার্থী হয়ে উঠবেন।’’

নির্বাচন,আন্তর্জাতিক,তুরস্ক
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close