• সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮, ৮ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

রাশিয়া বিশ্বকাপে গোল্ডেন গ্লভের দাবিদার কারা ?

প্রকাশ:  ১৩ জুলাই ২০১৮, ১১:৩৪
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট

বুঁফো, ক্যাসিয়াস, ন্যুয়ারের পর এবারের গোল্ডেন গ্লভের দাবিদার কে ? মেক্সিকোর গোলকিপার ওচোয়া থেকে শুরু করে ক্রোয়েশিয়ার সুবাসিচ, রাশিয়ার আকিনফিভ, বেলজিয়ামের কুর্তোয়া, ফ্রান্সের হুগো লরিস, কম যান না কেউই। একঝলকে এবারের বিশ্বকাপের সেরা গোলকিপারদের দেখে নিন ৷

লেভ ইয়াসিনের দেশে বিশ্বকাপের স্বপ্ন। স্বপ্ন দেখাচ্ছেন ইয়াসিনের উত্তরসূরীরা। এ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে গোলকিপারদেরই, তার খানিকটা আন্দাজ দিয়েছিলেন পন্ডিতরা। মেসি. নেইমারদের ব্যক্তিগত স্কিল, নৈপুণ্য ছাড়িয়ে রাজত্ব ওচোয়া, পিকফোর্ড, লরিসদেরই। প্রথা ভেঙে বিশ্বকাপে নজির গড়েছেন ইংল্যান্ডের জর্ডন পিকফোর্ড। অন্যদিকে ব্রাজিল ম্যাচে একের পর এক আক্রমণ সেভ করে ৩২ বছর পর দলকে সেমিফাইনালে তুলেছেন বেলজিয়ামের কুর্তোয়া। সেমির রাতে রেড ডেভিলসদের স্বপ্ন চুরমার করে দিয়েছে ফ্রান্স অধিনায়ক লরিসের বিশ্বস্ত হাতই।

ওচোয়াতে মেক্সিকান ওয়েভ

দল বিদায় নিয়েছে প্রি কোয়ার্টার থেকে। তবে পরিসংখ্যান মানলে বিশ্বকাপে সবথেকে বেশি সেভ মেক্সিকোর ওচোয়ার দখলেই। ৪ ম্যাচে ২৫টি সেভ করেছেন তিনি। সেভ রেট ৮০.৬%। জার্মানির বিরুদ্ধে ক্লিনশিট ওচোয়ার।

রেড ডেভিল কুর্তোয়া

এবারের গোল্ডেন গ্লভের অন্যতম দাবিদার। ফ্রান্সের কাছে হেরে তাঁর দল বিদায় নিয়েছে বিশ্বকাপ থেকে। কিন্তু মন জিতেছেন কুর্তোয়া। ওচোয়ার পরেই সবথেকে বেশি সেভ বেলজিয়াম গোলকিপারেই। ৬ ম্যােচ ২২টি সেভ করেছেন। সেভ রেট ৭৮.৬‍%। পানামা ও ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ক্লিনশিট ২৬ বছরের গোলকিপারের।

বাপ কা বেটা স্কেমিচেল

ডেনমার্কের পিটার স্কেমিচেল পুত্র ক্যাসপার স্কেমিচেল এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম আবিষ্কার। প্রি কোয়ার্টারে ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে টাইব্রেকারে অপ্রতিরোধ্য হয়ে ওঠেন স্কেমিচেল। শেষপর্যন্ত দল হারলেও রাশিয়ার মন জয় করে নেন জুনিয়র স্কেমিচেল। ৪ ম্যাচে ২১টি সেভ। সেভ রেট ৯১.৩%। পেরু ও ফ্রান্সের বিরুদ্ধে ক্লিনশিট ছিল তাঁর।

আকিনফিভে ব্যালের স্বপ্ন

স্পেনের বিরুদ্ধে আকিনফিভের টাইব্রেকারে সেভ এবারের বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা। ৫ ম্যাচে ১৫টি সেভ করে কোয়ার্টার ফাইনাল পর্যন্ত ব্যালের স্বপ্ন জাগিয়ে রেখেছিলেন ৩২ বছরের ইগর আকিনফিভ। ইগরের সেভ রেট ৬৮.২%। সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ক্লিনশিট।

সুবাসিচে সুভাষিত ক্রোট

বিশ্বকাপ শুরুর আগেই তাঁর উপর বাজি ধরেছিলেন অনেকে। ক্রোয়েশিয়ার প্রতি ম্যাচেই ভরসা দিচ্ছেন এই শেষপ্রহরী। ৪ ম্যাচে ১২টি দুর্দান্ত সেভ করেছেন সুবাসিচ। সেভ রেট ৮০ শতাংশ। নাইজেরিয়া ও আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে ক্লিনশিট।

লে ব্লুজের ভরসা লরিস

সেমিতে লুকাকুদের সব আক্রমণ প্রতিহত হয়েছে ফ্রান্স অধিনায়কের সুদক্ষ হাতেই। তাঁর দুর্ভেদ্য রক্ষণ ভেদ করতে কালঘাম ছোটাতে হয়েছে অন্য দলগুলিকেও। ৫ ম্যাচে ১১টি সেভ করেছেন লরিস। সেভ রেট ৭৩.৩%। পেরু, ডেনমার্ক, উরুগুয়ে ও বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে ক্লিনশিট। ফাইনালেও তাঁর কাছে অনেক প্রত্যাশা দেশঁর দেশের।

পিকফর্মে পিকফোর্ড

পিটার শিলটনকে মনে করাচ্ছেন জর্ডন পিকফোর্ড। পিকফোর্ডের সেভে টাইব্রেকার মিথ ভেঙে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। ৫ ম্যাচে ১০টি সেভ করেছেন। সেভ রেট ৭১.৪ শতাংশ। সুইডেনের বিরুদ্ধে ক্লিনশিট।

কথায় আছে, অ্যাটাকস উইন ইউ ম্যাচেস, ডিফেন্স টাইটেলস। আর ডিফেন্সের শেষপ্রহরী গোলকিপাররাই। কার হাতে শেষপর্যন্ত উঠবে গোল্ডেন গ্লভ ? জানতে অপেক্ষা আর কিছুদিনের ৷

/এস কে