• বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ৯ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

বিশ্বকাপ উদ্বোধনে স্ট্রেজ মাতাবেন রুশ সুন্দরী

প্রকাশ:  ১২ জুন ২০১৮, ১৫:২৪
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট

রাশিয়া বিশ্বকাপের বাঁশি পড়েছে৷ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের উদ্বোধনে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সামনে স্ট্রেজ মাতাবেন ব্রিটিশ পপ তারকা রবি উইলিয়ামস এবং রাশিয়ান গায়িকা আইদা গারিফুলিনা৷ মঞ্চে থাকবেন দু’বারের বিশ্বকাপ জয়ী ব্রাজিলীয় ফুটবল তারকা রোনাল্ডো৷

বছর দু’য়েক আগে রাশিয়ায় পারফর্ম করার ক্ষেত্রে এই ব্রিটিশ পপ তারকাকে নির্বাসনের দাবি উঠেছিল৷ কিন্তু ২০১৮ বিশ্বকাপের উদ্বোধনে খবরের শিরোনামে উঠে আসবেন সেই পপ তারকায়৷ উদ্বোধনী ম্যাচের ঠিক আধ ঘণ্টা আগে পারফর্ম করবেন উইলিয়ামস-গারিফুলিনা৷ তার পর অর্থাৎ ভারতীয় সময় রাতে ৮.৩০ উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হবে আয়োজক রাশিয়া ও সৌদি আরব৷

গ্লোবাল মিউজিক আইকন ও রুশ সুন্দরীর পারফর্ম দেখতে স্টেডিয়ামে উপস্থিত থাকবেন প্রায় ৮০ হাজার দর্শক৷ এছাড়াও সারা বিশ্বে টেলিভিশনের পর্দায় চোখ রাখবেন লক্ষ লক্ষ ফুটবলপ্রেমী৷ রাশিয়ার মাটিতে বিশ্ব ফুটবলের মঞ্চে পারফর্ম করার সুযোগ পেয়ে খুশি উইলিয়ামস৷ ব্রিটিশ পপ তারকা বলেন, ‘রাশিয়ায় ফিরতে পেরে আমি দারুণ খুশি৷ তার পর আবার বিশ্বকাপের মতো মঞ্চে৷ কেরিয়ারে অনেক শো করেছি৷ কিন্তু ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপের উদ্বোধনী মঞ্চে প্রায় ৮০ হাজার দর্শকের সামনে পারফর্ম করাটা অবশ্যই স্বপ্ন৷ আমরা স্টেডিয়ামে ফুটবল ও মিউজিক প্রেমীদের আমন্ত্রণ জানাছি৷’

আগের এডিশনের থেকে এবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান কিছুটা আলাদা হবে বল জানা গিয়েছে৷ উদ্বোধনী ম্যাচের আধ ঘণ্টা আগে শুরু হবে মিউজিক কনসার্ট৷ অনুষ্ঠান হবে ফুটবল ও আয়োজক দেশের ঐতিহ্য মেনেই৷ ব্রিটিশ পপ স্টারে সঙ্গে স্ট্রেজ মাতাবেন বছর তিরিশের রুশ গায়িকা আইদা৷ তিনি বলেন, আমি কখনও কল্পনা করিনি, এই রকম অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার সুযোগ পাব৷ দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ হচ্ছে৷ ১৫ জুলাই এই স্ট্রেজেই আমরা চ্যাম্পিয়নকে খুঁজে পাব৷ রাশিয়ায় এক মাস ধরে ফুটবল উৎসব চলবে৷’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকা নিয়ে প্রাক্তন ব্রাজিলীয় ফুটবল তারকা রোনাল্ডো বলেন, ‘আয়োজক দেশ হিসেবে উদ্বোধন অনুষ্ঠানটা অনেকটা আবেগের৷ চার বছর আগে আমরা তার সাক্ষী ছিলাম৷ আমি খুশি, সেই রকম উত্তেজনা এবার রাশিয়াতে পাব৷’ প্রথমবার বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর বসছে রাশিয়া৷ দেশের ১১টি শহরের মোট ১২টি স্টেডিয়ামে হবে ফুটবলের বিশ্বযুদ্ধ৷ ৩২টি দেশের ফুটবল যুদ্ধের সাক্ষী থাকবে সারা বিশ্ব৷ ৬৪টি ম্যাচের লড়াইয়ে খেতাব জিতবে একটি দেশ৷ ১৫ জুলাই মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে চ্যাম্পিয়নদের হাতে উঠবে বিশ্বসেরার ট্রফি৷ /এস কে