• শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮, ৫ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

বি. চৌধুরীর বাসায় গিয়ে ক্ষমা চাইলেন বিএনপি নেতারা!

প্রকাশ:  ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০২:৪৬
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট

বিগত চারদলীয় জোট সরকারের সময় সংঘটিত কিছু ঘটনার জন্য সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছে বিএনপি। দলটির স্থায়ী কমিটির দুই নেতা এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গত শুক্রবার বি চৌধুরীর বাসায় গিয়ে তাঁর সঙ্গে বৈঠককালে এই দুঃখ প্রকাশ করেন বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

নির্বাচন সামনে রেখে ‘যুক্তফ্রন্ট’ ও ‘জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার’ সমাবেশের আগের দিন শুক্রবার বিকাল সোয়া ৫টার দিকে বি. চৌধুরীর বাড়িতে গিয়ে সোয়া এক ঘণ্টা বৈঠক করলেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ তিন বিএনপি নেতা।

চারদলীয় জোট সরকারের সময় চাপের মুখে রাষ্ট্রপতির পদ থেকে বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে পদত্যাগে বাধ্য করে বিএনপি। শুধু তাই নয়, ওই সময়ে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে তিনি ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের অপদস্থ করা হয়; যা নিয়ে এক যুগের বেশি সময় ধরে ক্ষুব্ধ ছিলেন বি চৌধুরী।

সূত্রে জানা যায়, বি চৌধুরী ও তাঁর পরিবারের ক্ষোভ প্রশমনের জন্য ভেতরে ভেতরে নিষ্পত্তির চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয় বিএনপি। কিন্তু দলটির পক্ষ থেকে এই প্রথমবারের মতো সিনিয়র তিন নেতা গিয়ে এ বিষয়ে তাঁর সঙ্গে কথা বললেন।

প্রসঙ্গত, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিএনপির জয়লাভের পর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পান বি. চৌধুরী। পরবর্তীকালে ১৪ নভেম্বর ২০০১ এ তিনি রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব লাভ করেন। এবং ২০০২ সালের ২১ জুন পর্যন্ত দায়িত্বে ছিলেন। ২০০২ সালের ২১ জুন দলের অভ্যন্তরের অন্যান্য নেতাদের চাপে তিনি রাষ্ট্রপতির পদ হতে পদত্যাগ করেন।

প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগের পর ড. বি চৌধুরী বিএনপি থেকেও পদত্যাগ করেন। পরবর্তীকালে মুন্সীগঞ্জ-১ আসন থেকে নির্বাচিত তার ছেলে মাহি বি চৌধুরী ও ও বিএনপির আরেকজন সংসদ সদস্য এম এ মান্নানও সংসদ থেকে পদত্যাগ করেন।

এরপর থেকে বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক দূরত্ব তৈরি হয় বি. চৌধুরীর। মার্চ ২০০৪ এ বি চৌধুরীর উদ্যোগে বিকল্পধারা বাংলাদেশ নামে নতুন একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন।