• শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮, ৩ ভাদ্র ১৪২৫
  • ||

এইসব অর্ধশিক্ষিত রামছাগলদের জন্য চিড়িয়াখানা নির্মাণ করা অতীব জরুরি

প্রকাশ:  ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:৫৮
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট

রাজধানীর রাস্তায় এক পাশ দিয়ে ভিভিআইপি যাচ্ছেন আর অন্য পাশে রোগীকে বহন করা অ্যাম্বুলেন্স থেকে শুরু করে পথচারী পর্যন্ত সকলেই থেমে থাকতে হয় ২০-৩০ মিনিট। এতে করে রাজধানীর প্রত্যকটি রাস্তায় দেখা যায় লম্বা লাইন। এতে করে কয়েক হাজার মানুষের মূল্যবান কর্মঘণ্টা প্রতিনিয়ত নষ্ট হয়।

সর্বাধিক সাধারণ মানুষের জন্য সর্বাধিক কল্যাণের কথা চিন্তা করে এ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ সার্ভিস এবং ভিআইপিদের জরুরি যানবাহন চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা লেন করা যায় কিনা ? এমন একটি প্রস্তাব করেছে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কাছে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এই প্রস্তাবটি যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কাছে যাচাই বাছাই এর জন্য পাঠিয়েছে মাত্র। কিন্তু কিছু মিডিয়াি এই বিষয়কে ইস্যু বানিয়ে দিলো যে ভিআইপিদের চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা লেন হচ্ছে।

এ বিষয় প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন ফেসবুক পোস্টে তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আজকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ একটি প্রস্তাব করেছে যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কাছে যাচাই বাছাই এর জন্য। প্রস্তাবনাটি হলো এ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ সার্ভিস এবং ভিআইপিদের জরুরি যানবাহন চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা লেন করা যায় কিনা। যাতে যানজটে পড়ে বিনা চিকিৎসায় কোনো রোগীর মৃত্যু না হয়, ফায়ার সার্ভিস এবং পুলিশের গাড়িগুলো যথাসময়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারে। ভিভিআইপি ও ভিআইপিদের চলাচলে রাস্তায় কোনো অতিরিক্ত যানজট না হয়। বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ সবার জন্যই।

কিন্তু কিছু মিডিয়া ইস্যু বানিয়ে দিলো যে ভিআইপিদের চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা লেন হচ্ছে।

আর কিছু ছাগু চিলে কান নিয়ে গেছে ভেবে সমালোচনার ঝাঁপি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পরলো। এইসব অর্ধশিক্ষিত রামছাগল দিয়ে জাতি কি করিবে। তাহাদের জন্য চিড়িয়াখানা নির্মাণ করা অতীব জরুরি।