• বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

‘প্রতিবন্ধী কোটার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে, তবে সময়সীমা থাকতে হবে’

প্রকাশ:  ১২ অক্টোবর ২০১৮, ১৬:১০
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

তত্ত্ববধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. আকবর আলী খান বলেছেন, প্রতিবন্ধীদের জন্য শুধু চাকরির কোটাই যথেষ্ট নয়। তাদের শিক্ষার সুযোগ ও নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে।

শুক্রবার (১২ অক্টোবর) রাজধানীর মহাখালী ব্র্যাক সেন্টারে আয়োজিত এক বিতর্ক প্রতিযোগিতার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ড. আকবর আলী খান বলেন, সরকারি চাকরিতে প্রতিবন্ধীদের জন্য কোটার প্রয়োজনীয়তা এখনো রয়েছে। এই কোটার সময়সীমা থাকতে হবে। এটা আগামী ১০-১৫ বছরের জন্যও হতে পারে। তবে কোটা চিরস্থায়ী কোনো ব্যবস্থা নয়।

তিনি বলেন, সরকারি চাকরিতে প্রবেশের জন্য শারীরিক যোগ্যতার প্রয়োজন হয়ে থাকে। তবে কোনো কোনো প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী এক্ষেত্রে হয়তো পুলিশে চাকরি পাবে না, তবে শিক্ষক হতে পারবেন। অন্য কোনো চাকরিও করতে পারবেন। এটা আমাদের ভাবতে হবে।

অনুষ্ঠানে নাগরিক প্ল্যাটফর্মের আহ্ববায়ক ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য বলেন, যুবদের মধ্যে একটি বড় অংশ দৃষ্টি ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী। তাদের শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের সুযোগ দিতে হবে। তবে কোটা নিয়ে আমাদের সমাজে মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। কোটা মানে এ নয় যে, যোগ্যাতার অভাব। এটা দয়াও নয়। এটা প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি অধিকার।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে প্রতিবন্ধীদের জন্য কোটা সংরক্ষণ নিয়ে এই বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে নাগরিক প্ল্যাটফর্ম ও ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি।

‍অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ। এতে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সুশাসনের জন্য নাগরিকের সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, গ্রাম বিকাশ সহায়কা বিকাশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক মাসুদা বানু ফারুক রত্না।

-একে

ড. আকবর আলী খান,কোটা