• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

তফসিল সন্ধায়, থমথমে রাজধানী

প্রকাশ:  ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:৪৯
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক মতবিভেদ জিইয়ে রেখেই বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তফসিল ঘোষণা করছে নির্বাচন কমিশন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবেন। এরই মধ্যে সিইসির ভাষণের রেকর্ডিং সম্পন্ন হয়েছে। সন্ধ্যা ৭ টায় এ ভাষণ একযোগে রেডিও ও টেলিভিশনে প্রচার করা হবে।

এদিকে তফসিল ঘোষণা সামনে রেখে বুধবার থেকেই রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নিরাপত্তা জেরদার করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) নির্দেশনা অনুযায়ী এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার মধ্যে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন মোড়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের অবস্থান নিতে দেখা গেছে। সড়কে বাড়ানো হয়েছে র‌্যাবের টহল। বাড়ানো হয়েছে চেকপোস্ট। চলছে নিরাপত্তা তল্লাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের এ অবস্থানে ঢাকায় তৈরি হয়েছে অনেকটা থমথমে পরিস্থিতি। সড়কে যানবাহন কমতে শুরু করেছে। নগরবাসীদের মধ্যে তৈরি হয়েছে দ্রুত কাজ সেরে ঘরে ফেরার তাগিদ।

রাজধানীর নিরাপত্তা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গণমাধ্যম শাখার উপকমিশনার মাসুদুর রহমান বলেন, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী সারাদেশে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সন্ধ্যায় বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাতের বেতারে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার মাধ্যমে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবেন। তফসিলের কারণে ঢাকা মহানগরীতে পর্যাপ্তসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি মোকাবিলা করার প্রস্তুতি আমাদের আছে।

তিনি বলেন, তফসিল ঘোষণার পর যেন কোনো মহল নাশকতা অথবা কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা করতে না পারে, সেজন্য বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারির মধ্যে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা আছে। আগে থেকেই ধারণা করা হচ্ছিল, নভেম্বরের শুরুর দিকেই এই নির্বাচনের তারিখ জানিয়ে তফসিল ঘোষণা করা হবে। পরে গত ১ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ইসির প্রস্তুতি সম্পর্কে তাকে অবহিত করা হয়। ৪ নভেম্বর ইসি’র কমিশন সভায় সিদ্ধান্ত হয় ৮ নভেম্বর তফসিল ঘোষণার। তবে নির্বাচন কবে হবে, সে বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত জানা সম্ভব হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, ডিসেম্বরের ২০ তারিখের আগে বা পরের কোনো একদিন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

তফসিল সন্ধায়,,থমথমে রাজধানী
apps