• বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

আজও অফিসেই রাত কাটাচ্ছেন মেয়র সাঈদ খোকন

প্রকাশ:  ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০২:০৫
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
গত ৪ অক্টোবরের ছবি

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের দাফতরিক কাজে গতিশীলতা আনতে নাইট শিফট চালুর চিন্তা করছে কর্তৃপক্ষ। গত ৪ অক্টোবর রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত নগরভবনে অফিসে করে পরীক্ষামূলকভাবে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছিলেন মেয়র সাঈদ খোকন।

আজও নাইট শিফটে নগরভবনে অফিস করছেন তিনি। রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত নগরভবনে উপস্থিত থেকে কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্নতাসহ উন্নয়ন কাজ সরাসরি মনিটরিং করবেন মেয়র। তার সঙ্গে ডিএসসিসির বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারাও রাতের অফিসে যোগ দিয়েছেন।

সহকর্মীদের উদ্দেশে সাঈদ খোকন বলেন, আমরা গত সপ্তাহে রাতে কাজ করেছি। এর ফলাফল ভালো। পরদিন আমরা একটা পরিচ্ছন্ন শহর পেয়েছি। রাতে কাজ করলে দিনে ট্রাফিক চাপ একটু কমবে। আমাদের ডিএসসিসি এলাকার রাস্তায় পর্যাপ্ত আলো ও নিরাপত্তা রয়েছে। রাজধানী ঢাকায় এটা চালু হতে পারে।

এ জন্য তিনি বিভিন্ন সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে এ বিষয়ে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি রাজধানীর গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরানো ও যানজট নিরসনে বাস রুট রেশনালাইজেশন বিষয়ে গঠিত কমিটির প্রজ্ঞাপন জারির পর প্রতিক্রিয়া জানাতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে মেয়র সাঈদ খোকন বলেছিলেন, কোরিয়ার সিউল শহরের বিভিন্ন কর্পোরেশন ও সরকারি, আধা-সরকারি প্রতিষ্ঠান নাইট শিফটে কাজ করে। রাত ৯টা থেকে তাদের শিফট শুরু হয়। সকালে আবার আরও একটি শিফট শুরু হয়। তারা পুরো সময়টাকে ব্যবহার করছে। এ কারণে মানুষের মুভমেন্ট অনেকটা কমে গেছে। তার সুফল তারা ভোগ করছেন। যানজট হচ্ছে না।

তিনি বলেন, আমাদের ঢাকা শহরও এখন রাত ১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত অনেক অ্যাকটিভ দেখা যায়। ট্রান্সপোর্টগুলো ডিস্ট্রিবিউশন করছে। যদি সরকার মনে করে রাতের বেলায় একটা শিফট কাজ করবে, তাদের যদি পেমেন্ট, সিকিউরিটিজ এবং আসা-যাওয়ায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়, তাহলে এই ধারণাটা একেবারেই মন্দ না।

-একে

মেয়র সাঈদ খোকন