• বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ৩ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

নম্বর অপরিবর্তিত রেখে অপারেটর বদল শুরু

প্রকাশ:  ০১ অক্টোবর ২০১৮, ০২:০২
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হলো মোবাইল নম্বর পোর্টেবিলিটি (এমএনপি) সেবা বা নম্বর পরিবর্তন না করে অপারেটর বদলের সুযোগ।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) পূর্ব নির্ধারিত ঘোষণা অনুযায়ী সোমবার (১ অক্টোবর) রাত ১২টা থেকে এ সেবা শুরু হয়।

এরই মধ্যে সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছে এমএনপি সেবার দায়িত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান ইনফোজিলিয়ন টেলিটেক-বিডি ও মোবাইল অপারেটরেরা।

ইনফোজিলিয়ন টেলিটেক বিডির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মাবরুর হোসেন জানান, সেবাটি চালু করতে শনিবার রাত থেকেই পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। ছোটখাটো সমস্যা সমাধান করা হয়েছে। গ্রাহকেরা সোমবার সকাল থেকে অপারেটর বদল করতে পারবেন।

জানা যায়, অপারেটর বদলাতে গ্রাহককে জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) তথ্যাবলি নিয়ে সংশ্লিষ্ট অপারেটরের (যেটায় যেতে আগ্রহী) কাস্টমার কেয়ার বা সেবা কেন্দ্রে যেতে হবে। নিয়ম অনুযায়ী, ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নতুন সিমটি চালু হওয়ার কথা। একবার অপারেটর বদলালে গ্রাহককে নতুন অপারেটরে ৯০ দিন থাকতে হবে।

একবার অপারেটর বদলাতে গ্রাহককে ৫০ টাকা ফি দিতে হবে। এর ওপর ১৫ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আছে। ফলে গ্রাহকের ফি দাঁড়াচ্ছে ৫৭ টাকা ৫০ পয়সা। প্রতিবার অপারেটর বদলাতে গ্রাহককে নতুন সিম নিতে হবে। সিম পরিবর্তন বা রিপ্লেসমেন্টের ওপরে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ১০০ টাকা কর আছে। ফলে সব মিলিয়ে গ্রাহকের ফি দাঁড়াচ্ছে ১৫৮ টাকা। অবশ্য অপারেটরেরা গ্রাহক টানতে তাদের কাছ থেকে ফি কম নিতে পারে। ফলে অপারেটরেরা কত টাকা নেবে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। এর বাইরে অপারেটরের ফি আছে ১০০ টাকা, যা এমএনপি সেবাদাতাকে দিতে হবে।

এছাড়া অপারেটর পরিবর্তনে গ্রাহকদের সহযোগিতা দিতে ইতিমধ্যে টিকিটিং পদ্ধতির হেল্পডেস্ক চালু করেছে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান। পাশাপাশি ওয়েবসাইটে (www.infotelebd.com) প্রয়োজনীয় তথ্য ও অ্যানিমেশন যুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া ই-মেইলের মাধ্যমেও গ্রাহকরা যোগাযোগ করতে পারবেন।

-একে

এমএনপি