• বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১ ভাদ্র ১৪২৫
  • ||

রাজশাহীতে অপপ্রচারে বিএনপি, টার্গেট নারী ভোটার

প্রকাশ:  ২২ জুলাই ২০১৮, ০১:৪৮ | আপডেট : ২৩ জুলাই ২০১৮, ১৬:৫১
রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

আসন্ন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের দিন যতই সন্নিকটে আসছে, নির্বাচনে অংশ নেয়া দুই প্রধান মেয়র প্রার্থীর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতাও আরো চরম আকার ধারণ করছে। ক্ষমতাসীন দল মহাজোটের মনোনয়ন পাওয়া মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের বিরুদ্ধে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে লড়ছেন বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রাপ্ত মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

২০০৮ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত মেয়র হিসেবে রাজশাহী সিটির উন্নয়ন কর্মকান্ডে ব্যাপক অবদান রাখার ফলে খায়রুজ্জামান লিটন ভোটারদের কাছে জনপ্রিয় প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হচ্ছেন। অপরদিকে ২০১৩ সালের ১৫ জুন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন বুলবুল। মেয়র হিসেবে নিজের দেয়া ইশতেহারের ১০ ভাগও পূরণ করতে পারেননি তিনি।

নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা যখন আলোচিত দুই মেয়র প্রার্থীর মধ্যে তুঙ্গে তখন অনুসন্ধানে বুলবুলের নির্বাচনী প্রচারণার বিভিন্ন অপকৌশল বেরিয়ে আসে। বর্তমানে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ১৮ হাজার ১৩৮ জনের মধ্যে ১ লাখ ৬২ হাজার ৫৩ জন নারী। সংখ্যায় অর্ধেকের বেশী ভোটার এ নারীরাই বুলবুলের টার্গেটে রয়েছে।

অনুসন্ধানে বের হয়ে আসে যে, রাজশাহী বিএনপির নারী কর্মীরা নিম্ন মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্ত নারী ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধর্ণা দিচ্ছে। তাদের সাথে জামায়াতের সক্রিয় নারী কর্মীরাও রয়েছে। বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে মহিলাদের কাছে লিটনের নামে অপপ্রচার চালানোর অভিযোগ পাওয়া যায় তাদের বিরুদ্ধে।

নগরীর রায়পাড়া, আদুবুরি, পবা নতুনপাড়া ও শুঁড়িপাড়ার বস্তিবাসী নারী ভোটারদের দেয়া ভাষ্যমতে, লিটন মেয়র নির্বাচিত হলে বস্তি উচ্ছেদ করা হবে এবং বস্তি উচ্ছেদ করে মন্দির প্রতিষ্ঠা করা হবে এমন অপপ্রচার চালাচ্ছে ধানের শীষ সমর্থিত নারী কর্মীরা। এ ধরণের অপপ্রচারকালে ধানের শীষের পাঁচ নারী জামায়াত কর্মীকে ধরে পুলিশে দেয় স্থানীয় ভোটাররা। এছাড়া নগরীর সাহেব বাজার ও রানী বাজারের কিছু নারী ভোটারদের অভিযোগ, নগদ অর্থ প্রদান করে ও ধর্মগ্রন্থ ছুইয়ে বুলবুলকে ভোট দেয়ার জন্যে শপথ করানো হয় তাদের।

রাজশাহী অঞ্চলের রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, মহিলারা সংসার কর্ম নিয়ে ব্যস্ত থাকায় ও রাজনীতি নিয়ে সীমিত জ্ঞান থাকায় তাদেরকে প্রলুব্ধ করা সহজ, আর এই সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছে বুলবুল।