• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫
  • ||

বরিশাল সিটি নির্বাচন

সরব আ.লীগ, নীরব কৌশলে বিএনপি

প্রকাশ:  ১১ জুলাই ২০১৮, ১৭:০০
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রিন্ট

২০১৩ সালের সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রকাশ্যে প্রচারণায় পিছিয়ে ছিল। কিন্তু কর্মীরা নীরবে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়েছিল। সেই নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী নীরবে প্রচার চালিয়েছিলেন। নীরব প্রচারণাই বিএনপিকে জয়ের পথ দেখিয়েছিল। বিএনপির মজিবর রহমান সরোয়ার এবার দলের মেয়র পদপ্রার্থী। এবারও ‘নীরব’ নির্বাচনী প্রচার কৌশল নির্ধারণ করেছে বিএনপি ।

অন্যদিকে নৌকা প্রতীক নিয়ে মাঠে সরব নির্বাচনী প্রচারণা চালাবেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ।

বিএনপির ‘নীরব’ কৌশল : বিএনপির প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ার দলীয় কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার (১০ জুলাই) নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। সেখানে মেয়র মনোনয়ন প্রত্যাশী এবায়দুল হক চানও ছিলেন। খেলাফত মজলিসের মনোনয়ন প্রত্যাহারকারী এ কে এম মাহাবুবুর রহমান (মেয়র প্রার্থী) ওই প্রচারণায় অংশ নেন। তবে আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী বিলকিস জাহান শিরিন প্রচারণায় ছিলেন না। ছিল না জামায়াতের শীর্ষপর্যায়ের কোনো নেতাকর্মী। ভোটের মাঠে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে অংশ নেওয়া সরোয়ার অনেকটা ‘নীরবে’ প্রচারণা শুরু করেছেন।

কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক (বরিশাল) বিলকিস জাহান শিরিন বলেন, দলীয় নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে। তারা প্রশাসন আর ক্ষমতাসীনদের ভয়ে আছে। সেই কারণে নেতাকর্মীরা যে যার অবস্থান থেকে প্রচারণায় অংশ নেবে।

মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, এই নগরের ভোটার ও এখানকার মানুষ আমাকে সব সময় তাদের সঙ্গেই রেখেছেন। তাই তাদের কাছে আমাকে যেতে হবে। আমি প্রার্থী, ভোটাররা প্রার্থীকেই পাশে চান।

সরব নৌকার প্রচারণা: আওয়ামী লীগের প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ দলীয় মনোনয়ন পেয়েই ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাদের বাড়িতে বাড়িতে যাচ্ছেন। দলীয় ও বিভিন্ন সংগঠনের কার্যালয়ে গিয়ে মতবিনিময় করছেন। নিজেকে বিজয়ী করতে মাঠপর্যায়ের নেতাকর্মীদের প্রস্তুত করতে তাদের কাছে ছুটছেন। তার পক্ষে বিভিন্ন জেলার প্রভাবশালী নেতারা প্রচারণায় অংশ নেবেন।

জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেছেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে মহানগর আওয়ামী লীগ, অঙ্গসংগঠনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে নৌকা প্রতীকের পক্ষে শুরু হয় প্রচারণা। এর বাইরে প্রত্যেক ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে একযোগে তার পক্ষে প্রচারণা চালায় নেতাকর্মীরা। প্রচারণায় জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়। সাদিক বুধবার থেকে ২০ জুলাই পর্যন্ত প্রতিদিন নগরীর তিনটি ওয়ার্ডে তিনটি করে উঠান বৈঠক করবেন।

এছাড়াও প্রচারণায় আছে হাত পাখা প্রতীক নিয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মেয়র পদপ্রার্থী মাওলানা ওবায়দুর রহমান মাহাবুব। এর বাইরে বাসদ প্রার্থী ডা. মণীষা চক্রবর্তী তার দলীয় প্রতীক মইয়ের পক্ষে গতকাল দুপুরে ফকিরবাড়ী রোডস্থ দলীয় কার্যালয় থেকে প্রচারণা শুরু করেন। একইভাবে সিপিপি প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ তার কাস্তে প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা চালান

/পি.এস

বরিশাল,আ.লীগ,বিএনপি