• বুধবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ৯ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতদের তালিকায় আরও ৯ জন

প্রকাশ:  ২৬ মে ২০১৮, ০১:১৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে চলমান সাঁড়াশি অভিযানে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহতদের তালিকায় যোগ হলো আরও ৯ জন। নিহতদের মধ্যে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ১, নেত্রকোনায় ২, শেরপুর, গাইবান্ধা, কুমিল্লা, ঝিনাইদহ, ময়ময়নসিংহ ও সাতক্ষীরায় একজন রয়েছেন। নিহতদের সবাই মাদক ব্যবসায়ী বলে দাবি করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

শুক্রবার ভোর ও বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতের বিভিন্ন সময়ে এসব 'বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা ঘটে। মাদকবিরোধী অভিযানে গত তিন সপ্তাহে নিহতের সংখ্যা ৬০ জনে দাঁড়ালো।

রাজধানীর তেজগাঁও বিজি প্রেস এলাকায় বৃহস্পতিবার দিনগত মধ্যরাতে র‍্যাব-২-এর সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ কামরুল ইসলাম (৩৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। র‍্যাবের দাবি নিহত কামরুল মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর বাসা রাজধানীর মহাখালীর দক্ষিণপাড়ায়।

এদিন দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে নেত্রকোনা সদর উপজেলার মদনপুর মনাং এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ব্যক্তি নিহত হন। দুজনের বাড়ি কক্সবাজার জেলায় বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী।নিহত দুজনের মধ্যে একজনের নাম মো. ওসমান গণি (৩৫)। তিনি কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার দক্ষিণ হিলির পশ্চিম শিকদার পাড়ার মিনার এলাকার মৃত হোসাইনের ছেলে। নিহত অপর জনের পরিচয় জানা না গেলেও তাঁর বাড়ি কক্সবাজারে তা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

শেরপুর সদর উপজেলার সাতপাকিয়া গ্রামে : দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন মো. আজাদ (২৮) নামের এক ব্যক্তি। তাঁর বাড়ি পার্শ্ববর্তী মরাকান্দি গ্রামে। পুলিশের দাব , নিহত আজাদ কালু ডাকাত হিসেবে পরিচিত ছিলেন. বর্তমানে সে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে। বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছেন।

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার বালাসীঘাটে আজ ভোরে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন জুয়েল (৪৬) নামের এক ব্যক্তি। তাঁর বাড়ি শহরের ব্রিজ রোড কালীবাড়ী এলাকায়।

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মহিষমারা এলাকায় শুক্রবার ভোরে কামাল ওরফে ফেন্সি কামাল নামের এক ব্যক্তি পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। নিহত কামালের বাড়ি আদর্শ সদর উপজেলার রাজমঙ্গলপুর গ্রামে।

ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শামিম হোসেন (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রাত ১১টার দিকে কালীগঞ্জ শহরের বলিদাপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত শামিম শহরের শিবনগর এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। পুলিশ জানিয়েছে, শামিম চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ইউনুস আলী দালাল (৪৫) নামের একজন গুলিতে নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দুইটার দিকে উপজেলার সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইউনুস আলী দালাল উপজেলার দক্ষিণ ভাদিয়ালি গ্রামের আব্দুল্লাহ দালালের ছেলে। পুলিশের দাবি, নিহত ব্যক্তি একজন মাদক ব্যবসায়ী। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ওয়ান শুটার গান, দুটি গুলি ও ৭০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে।

ময়মনসিংহ শহরের পুরোহিত পাড়া রেল কলোনি এলাকায় পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সঙ্গে দিনগত রাত দুইটায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রাজন (৩০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, রাজন ময়মনসিংহ শহরের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের একজন। তাঁর নামে ৮-৯টি মামলা রয়েছে।

মাদক ব্যবসায়ী,বন্দুকযুদ্ধে