• শনিবার, ২৬ মে ২০১৮, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
  • ||

চাঁদা না পেয়ে ব্যবসায়ীকে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা রনি (ভিডিও)

প্রকাশ:  ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৭:১৪ | আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০১৮, ১৯:১৮
চট্টগ্রাম প্রতিনিধি
প্রিন্ট
চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে ঢুকে অধ্যক্ষকে পেটানোর হোতা চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির আরেক কেলেঙ্কারির ঘটনা এবার ফাঁস হয়েছে। চাঁদার টাকা না পেয়ে অফিসে ঢুকে মেরেছেন একজন কোচিং ব্যবসায়ীকে তার মারধর করার ভিডিওক্লিপ ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

এ ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। চট্টগ্রাম নগরীর জিইসি মোড় এলাকার ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের অফিস কক্ষের প্রায় ৬ মিনিটের এই সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, প্রথমে ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের মালিক রাশেদ মিয়াকে আঙুল তুলে শাসিয়ে টেবিল চাপরাচ্ছেন রনি। এক পর্যায়ে রাশেদের গালে থাপ্পড় মারতে দেখা যায় রনিকে। পরে চুল ধরে টানা-হেঁচড়া করে রাশেদের গালে কয়েকবার থাপ্পড় মারতে থাকেন তিনি।
মাঝে মধ্যে চলতে থাকে তার ‘শাসন’। এভাবে প্রায় আড়াই মিনিট চলার পর রুম ছেড়ে বেরিয়ে যান রনি। কয়েক মুহূর্ত পরই আবারো ফিরে এসে গালমন্দ করতে থাকেন। এই মুহূর্তে তাকে দীর্ঘ সময় কারো সঙ্গে ফোনালাপে ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়।

পুরো ঘটনায়  ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের মালিক মালিক রাশেদকে হাতজোড় করে চেয়ারে বসে থাকতে দেখা গেছে। বিভিন্ন সময় রনি দাবি করে এসেছেন ইউনিএইড কোচিং সেন্টারে তারও মালিকানা আছে।

মারধরের শিকার ইউনিএইড কোচিং সেন্টারের মালিক রাশেদ মিয়া বিষয়টি জানিয়ে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ বিষয়ে পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহিউদ্দিন মাহমুদ বলেন, এক কোচিং শিক্ষককে মারধোরের বিষয়ে আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের সঙ্গে প্রমাণ হিসেবে কিছু ছবি এবং একটি ভিডিও ফুটেজ আমরা পেয়েছি। যাচাই-বাছাই করে অভিযোগটি মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হবে।

২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে ভুক্তভোগীকে মারধোর করা হয় উল্লেখ করে ওই অভিযোগে বলা হয়েছে, গত ১৩ এপ্রিল ছাত্রলীগ নেতা নুরুল আজিম রনি (২৯) ও তার বন্ধু নোমান চৌধুরী রাকিব (২৪)সহ আরও কয়েকজন ব্যক্তি ভুক্তভোগী রাশেদকে ধরে নিয়ে তাদের মুরাদপুর পাঁচলাইশ বুড়িপুকুর পাড় অফিসে নিয়ে যায়। এসময় তার কাছে ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। এত টাকা তার কাছে নেই জানানো হলে এ সময় রনি তার অফিসে থাকা হকিস্টিক দিয়ে রাশেদের বাম কানের উপরে আঘাত করে। এতে রাশেদের বাম কানের শ্রবণশক্তি নষ্ট হয়ে যায় বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।