• শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮, ৩ ভাদ্র ১৪২৫
  • ||

কারসাজি করে ব্যাংক ঋণ গ্রহীতাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

প্রকাশ:  ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৭:৪৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

কারসাজি করে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বস্ত্রকল মালিকদের সংগঠন বিটিএমএ। সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন,বিটিএমএর সদস্য প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যারা কারসাজি করে ঋণ নিয়েছে, তাদের কালো তালিকাভুক্ত করা হবে। তখন সেই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে ব্যবসা পরিচালনা করা কষ্টসাধ্য হবে। বিষয়টি নিয়ে আমরা কাজ করছি। শিগগিরই বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত হবে।

রাজধানীর পান্থপথে বিটিএমএর কার্যালয়ে মঙ্গলবার ১৫তম ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশনের (ডিটিজি) বিষয়ে অবহিত করতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে বিটিএমএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন একথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সহসভাপতি হোসেন মেহমুদ, পরিচালক খোরশেদ আলম, মনির হোসেন, শামস মাহমুদ, মোশাররফ হোসেন, সুমাইয়া আজিজ প্রমুখ।

কারসাজি করে ঋণ নেয়া বিষয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, মি গত ২২ বছরের ব্যবসায়িক জীবনে ২০০ কোটি টাকার বেশি ঋণ নিতে পারিনি। কিন্তু একটি প্রতিষ্ঠান ৬ বছরেই ৫ হাজার ৫০৪ কোটি টাকা ঋণ নিয়ে নিয়েছে। তাদের জন্য সাধারণ ব্যবসায়ীরা বিভিন্নভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, অল্প সময়ে পাঁচ হাজার কোটি টাকার বেশি ঋণ নেওয়ার পেছনে বড় কোনো লোক জড়িত আছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ঢাকার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার চার দিনব্যাপী ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশনের উদ্বোধন হবে। এবারের প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, বেলজিয়াম, চীন, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইন্দোনেশিয়া, আয়ারল্যান্ড, ইতালি, জাপান, কোরিয়া, মালয়েশিয়াসহ ৩৬টি দেশের প্রায় ১ হাজার ১০০টি বস্ত্র ও পোশাক খাতের যন্ত্রপাতি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। সব মিলিয়ে বুথ বা স্টল থাকবে ১ হাজার ২০০টি।

বিটিএমএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বলেন, ‘গত বছরের প্রদর্শনীতে প্রায় ২৫ কোটি মার্কিন ডলারের তাৎক্ষণিক ক্রয় আদেশ পেয়েছিল অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো। আশা করছি, গতবারের চেয়ে এবার বেশি পরিমাণে তাৎক্ষণিক ক্রয়াদেশ মিলবে।

৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে প্রদর্শনীর উদ্বোধন। সেদিনই বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলার রায় হওয়ার কথা রয়েছে। দিনটিকে ঘিরে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত। ফলে প্রদর্শনী নিয়ে কোনো শঙ্কা আছে কি না, জানতে চাইলে মোহাম্মদ আলী, ‘৩৬ দেশের প্রতিনিধিরা ইতিমধ্যে বাংলাদেশে চলে এসেছে। এটি আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী। চাইলেই স্থগিত করা যায় না। ৮ ফেব্রুয়ারি নিয়ে সারা বাংলাদেশ শঙ্কিত। তবে আমরা এগুলোতে অভ্যস্ত। আশা করছি, প্রদর্শনী নিয়ে কোনো ধরনের সমস্যা হবে না।

বিটিএমএ ও হংকংয়ের ইয়োকার্স ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিং সার্ভিস কোম্পানি যৌথভাবে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল টেক্সটাইল অ্যান্ড গার্মেন্টস মেশিনারি এক্সিবিশন (ডিটিজি) আয়োজন করছে। সংবাদ সম্মেলনে বিটিএমএর নেতাদের পাশাপাশি ইয়োকার্স ট্রেড অ্যান্ড মার্কেটিংয়ের প্রেসিডেন্ট জুডি ওয়াং উপস্থিত ছিলেন। তিনি বলেন, জায়গার স্বল্পতার কারণে অনেক প্রতিষ্ঠানকে প্রদর্শনীতে সুযোগ দেওয়া যায়নি। তাই আগামী বছর থেকে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় স্থানান্তরের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। /মজুমদার