• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
  • ||

আড়ংয়ের চল্লিশ বছর পূর্তি উৎসব

প্রকাশ:  ২৬ অক্টোবর ২০১৮, ১৬:৫৮
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রিন্ট

জনপ্রিয় লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড আড়ং -এর চল্লিশ বছর পূর্তি উৎসব শুরু হয়েছে রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তিন দিনব্যাপী এ উৎসবের উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। অনুষ্ঠানে উদ্বোধনী বক্তব্য প্রদান করেন ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারপার্সন ফজলে হাসান আবেদ এবং ব্র্যাক এন্টারপ্রাইজেসের সিনিয়র ডিরেক্টর তামারা হাসান আবেদ।

এ উপলক্ষে আয়োজিত একটি বিশেষ অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রির ৪০ জন অসাধারণ কারুশিল্পী ও উদ্যোক্তাকে স্বীকৃতি প্রদান করেছে আড়ং।

অনুষ্ঠানে সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘দেশের উন্নয়নের অগ্রগতিতে নারীদের ভূমিকা অতুলনীয়। নারীদের কর্মসংস্থান তৈরিতে আড়ং উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘নিজেকে স্বাবলম্বী করতে নারীদের অনেক যুদ্ধ করতে হয়, সেই যুদ্ধে সহায়তা করছে আড়ং। দেশের শিল্প ঐতিহ্য ধরে রাখায়ও আড়ং-এর অবদান রয়েছে।’

ব্র্যাকের চেয়ারপার্সন ফজলে হাসান আবেদ বলেন, ‘স্বাধীনতা অর্জনের পর পর দারিদ্র দূর করার লক্ষ্যেই আড়ং-এর উদ্যোগ নেয়া হয়েছিল। প্রতিষ্ঠার সময় মোকাবিলা করতে হয়েছে অনেক প্রতিবন্ধকতা। পেশাদারী দৃষ্টিকোণ থেকে দরিদ্র প্রস্তুতকারকদের স্বার্থকেই তারা বড় করে দেখেছেন।’ তিনি বলেন, ‘আড়ং হারানো ঐতিহ্য ধরে রেখে তাকে বাণিজ্যিক রূপ দিয়েছে।’

ব্র্যাক এন্টারপ্রাইজেসের সিনিয়র ডিরেক্টর তামারা হাসান আবেদ বলেন, ‘বাংলাদেশ ও আড়ং একই সঙ্গে বেড়ে উঠেছে। দেশে ৬৫ হাজার কর্মসংস্থান তৈরি করেছে আড়ং। ফ্যাশন হাউসটির ৪০ বছরের যাত্রা ও বাংলাদেশের ঐতিহ্যের সঙ্গে তরুণ প্রজন্মকে পরিচয় করিয়ে দেয়ার জন্যই এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে।’

তিন দিনব্যাপী উৎসবে দর্শকেরা ১১টি লাইভ কারুশিল্প প্রদর্শনী উপভোগ করতে পারবেন যার মধ্যে পাঁচটি কর্মশালায় অংশগ্রহণের সুযোগ থাকছে। দর্শনার্থীদের জন্য থাকছে বেশ কয়েকটি খাবারের স্টল, বাচ্চাদের জন্য আলাদা জায়গা এবং পার্টনার প্রতিষ্ঠানের স্টলে বিশেষ সুবিধায় কেনাকাটার ব্যবস্থা।

আড়ংয়ের চল্লিশ বছর পূর্তি উৎসব বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী শিল্পকলা এবং ফ্যাশনকে তুলে ধরবে। ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত এ উৎসব চলবে প্রতিদিন সকাল ১১টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত।

আড়ং প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৮ সালে, গ্রামীণ কারু ও হস্তশিল্পীদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে। গত ৪০ বছর ধরে বাংলাদেশের আবহমান ঐতিহ্যের সঙ্গে আধুনিক ফ্যাশনের মেলবন্ধন ঘটিয়ে নিজেকে দেশের সবচেয়ে বড় ফ্যাশন ব্র্যান্ড হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে আড়ং। বর্তমানে আড়ংয়ের সঙ্গে সরাসরি কাজ করছেন ৬৫ হাজারেরও বেশি কারু ও হস্তশিল্পী। তাদের উৎপাদিত পণ্য সরাসরি বিক্রি হচ্ছে দেশজুড়ে আড়ংয়ের ২০টি আউটলেটে।

প্রসঙ্গত, আজ উৎসবের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার থাকছে নানা আয়োজন। সন্ধ্যায় থাকছে ফ্যাশন শো। শেষদিন আগামীকাল শনিবার থাকছে কনসার্ট। এতে সঙ্গীত পরিবেশন করবেন নগরবাউল জেমস, জলের গান, নেমেসিসসহ খ্যাতনামা ব্যান্ডদল। উৎসবে দর্শানার্থী ক্রেতা যারা এসেছেন তাদের আগে থেকেই রেজিস্ট্রেশন করতে হয়েছে।

/এ আই

apps