• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

সমালোচকেরা কি বলছেন ‘বোহেমিয়ান র‍্যাপসোডি’ নিয়ে?

প্রকাশ:  ২৯ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:০১ | আপডেট : ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:১০
বিনোদন ডেস্ক
প্রিন্ট

বছরের সবচেয়ে আকাঙ্ক্ষিত সিনেমার নাম বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি। হলিউড থেকে ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে, কিন্তু ছবিটি নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে সারা পৃথিবীতে। নভেম্বরে ছবিটি মুক্তি পেলেও আমেরিকায় বিশেষ প্রদর্শনীর মাধ্যমে ছবিটি দেখেছে সিনেমাবোদ্ধারা।

কুইন ব্যান্ডের বিখ্যাত রকস্টার ফ্রেডি মার্কারির জীবন থেকে গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’। কেমন হয়েছে ছবিটি? ফ্রেডির জীবনকে কতটা সাবলীল ভাবে তুলে ধরতে পেরেছে এই ছবি? এসব প্রশ্ন এখন ঘুরে বেড়াচ্ছে ভক্তদের চিন্তা জগতে। সমালোচকেরা অবশ্য বলছেন ‘বোহেমিয়ান’ ফ্রেডির ভক্তদের নিরাশ করবে না ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’।

‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’ দেখার পর ফ্রেডির চরিত্রে অভিনয় করা র‌্যামি মালিকের প্রশংসা করছেন সবাই। কিন্তু সিনেমাটি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দিচ্ছেন বোদ্ধারা। বিখ্যাত সিনেমা রিভিউ সাইট রটেন টমেটোতে ছবিটির রেটিং পড়েছে মাত্র ৫৪ শতাংশ।

‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’ মূলত ফ্রেডি মার্কারি ও কুইন ব্যান্ডের প্রথম পনের বছর সময়ের বিস্তারিত বিবরণ। সেই সঙ্গে তার শৈশব-কৈশোরের কিছু ঘটনাও উঠে আসবে ছবিটিতে। ছবিটি পরিচালনা করেছেন ব্রায়ান সিংগার।

হলিউড রিপোর্টারের সাংবাদিক শেরি লিন্ডেন লিখেছেন, ‘সিনেমাটি তেজোময়। পুরোটা মসৃন না হলেও কিংবা অপুষ্ট হলেও মার্কারি এবং কুইনের জন্য ভালবাসার কারণে বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি ভালো লাগবে সবার।’ শেরি অবশ্য খোঁচাও দিয়েছেন বোহেমিয়ানের নির্মাতাদের। লিখেছেন, ‘কিছুদিন পর কুইনের উপর অন্যকোন কোন সিনেমা আরও গভীর পর্যন্ত যেতে পারবে।’

নির্মাতাদের সমালোচনা করলেও শেরি অবশ্য র‌্যামি মালিকের প্রশংসা করেছেন। তার অভিনয়কে ‘স্বর্গীয়’ আখ্যা দিয়েছেন শেরি। সেই সঙ্গে ছবিটির কস্টিউম ডিজাইনার জুলিয়ান ডে, প্রোডাকশন অ্যারন হায়ে, এডিটর জন ওটম্যানেরও ভূয়সী প্রশংসা করেছেন এই সমালোচক।

বিখ্যাত ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের স্টিভ রোজ ছবিটিকে মাত্র দুই রেটিং দিয়েছেন। তবে র‌্যামি মালিক তার কাছ থেকেও কুড়িয়ে নিয়েছেন প্রশংসা। তার ভাষায়, ‘র‌্যামি এক্সিলেন্ট’। স্টিভ বলছেন, ‘চমৎকার একটি ব্যান্ডের উপর অগুরুত্বপূর্ণ কাজ।’

স্টিভ র‌্যামির অভিনয়ের প্রশংসা করলেও, মার্কারির অফস্টেজ জীবনে তাকে সেভাবে উপস্থাপন করতে পারেননি বলে মনে করেন। এছাড়াও মার্কারির প্রেমিকা ম্যারি অস্টিনের চরিত্রে লুসি বয়ন্টনের রসায়ন নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। স্টিভের মতে, এই জুটিকে দেখে মনে হয়েছে মার্কারি উভকামী কিন্তু সমকামী নয়। [প্রকৃত অর্থে মার্কারি সমকামী ছিলেন।]

গার্ডিয়ানের মতো ইউএসএ টুডে পত্রিকার ব্রায়ান ট্রুটও বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডিকে দুই রেটিং দিয়েছেন। তিনি বেশ শক্ত সমালোচনাই করেছেন ছবিটির। তার মতে, ছবিটির ব্যাপারে একটা জায়গাতেই দয়াপরবশ হওয়া যায় যে এটি কুইনের বায়োপিক সেই সঙ্গে প্রাণনাশকও। খুব কাছাকাছি মতামত দিয়েছেন হলিউডের বাকী সমালোচকেরা।

যাই হোক, ছবিটির নন্দনতত্ত্ব নিয়ে সবাই সমালোচনা করলেও গল্পের প্রশংসা করেছেন সবাই। মূল চরিত্রের ফ্রেডিকে নিয়েও মোটা দাগে কারো কোন প্রশ্ন নেই। তবে বোদ্ধাদের মতে, বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি আরও একটু ভালো হতে পারতো।

apps