• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৮ ১৪২৫
  • ||
  • আর্কাইভ

গণ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ নির্বাচন জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী নারী তিন প্রার্থী

প্রকাশ:  ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:৪৫ | আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১২:৪৬
মুন্নি আক্তার, গণ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রিন্ট

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের তৃতীয় কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।   

এবার নির্বাচনে ৬ টি পদে মোট ২৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন পেয়েছেন। এর মধ্যে ৩ জন নারী প্রার্থীও আছেন। কোষাধক্ষ পদে ফার্মেসি বিভাগের খাদিজা আক্তার সেতু লড়ছেন আরো তিন পুরুষ প্রার্থীর সঙ্গে। সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মেডিকেল ফিজিক্স ও বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং এর সাবিকুন নাহার সম্পা’ও তিনজন পুরুষ প্রার্থীর সংগে লড়ছেন। আর প্রচার ও সমাজসেবা সম্পাদক পদে মরিয়ম জাহান এলমা লড়ছেন আরো দুজন পুরুষ এর বিপক্ষে। এ তিন নারীর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিষয় এরা তিনজন একে অন্যের বান্ধবী। এ তিন বান্ধবী একত্রেই ছাত্র-সংসদে নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পাবে বলে গুঞ্জন উঠেছে ছাত্রমহলে।

ছাত্র-সংসদের আগের কমিটির কোষাধক্ষ’ও ফার্মেসী বিভাগের একজন নারী প্রার্থী ছিলেন। তার পথ ধরেই খাদিজা আক্তার সেতু সহজ গন্তব্যে পৌছবেন বলে আশা সকলের। নির্বাচনের আগের দিন দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, আমার পরিবার, বন্ধুমহল খুব সাপোর্ট দিচ্ছে। তাদের জন্যই দুবার নির্বাচন থেকে ফিরে আসতে চেয়েও ফিরতে পারিনি। নির্বাচনে জয় লাভ করি আর না করি অন্যদের কাছ থেকে এত পরিমাণ ভালোবাসা যে পাচ্ছি; তা বলে শেষ করতে পারবোনা।

স্কুল গন্ডি থেকেই বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সঙ্গে সংযুক্ত সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদের প্রার্থী সাবিকুন নাহার সম্পা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে আগে থেকেই শিক্ষার্থীরা আমার সাংস্কৃতিক কার্যক্রম দেখেছেন। সাহিত্যের প্রতি ভালোবাসা থেকেই এ পদ বেছে নিয়েছি যাতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ে সাহিত্যের আরো অনুশীলন ঘটে। সাহিত্য অনুরাগীরা যাতে উপযুক্ত পরিবেশ পায় সে লক্ষ্যে কাজ করার প্রয়াস ব্যক্ত করেন তিনি।

ইংরেজী বিভাগের মরিয়ম জাহান এলমা বলেন, একজন নারী হিসেবে এই পদে নিজেকে যোগ্য মনে করছি। নারীদের গ্রহণযোগ্যতা বেশি হওয়ায় আশা করি আমি ভালো করতে পারবো। আমি এ এলাকারই(ধামরাই) মেয়ে , সে হিসেবে আমাকে আশেপাশের অনেকেই আগে থেকেই ভালভাবেই চেনে। আমার ছোটবেলার অনেক বন্ধু-বান্ধব এখন একসাথে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ি, তাদের আমি যথেষ্ট সাপোর্ট পাচ্ছি। এছাড়া আমি সমস্যার কথা সরাসরি তুলে ধরতে পারি এজন্য অন্য মেয়েরা আমাকেই বেছে নিবে বলে আমি মনে করি।

তিন বান্ধবী আলাদা সাক্ষাতকারেই অন্যদের প্রশংসা করেছেন, নির্বাচনী মৌসুমকে একসাথেই উপভোগ করছেন তিন বান্ধবী। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র সর্বদা নারীদের সম্মানিত অবস্থান নিশ্চিত করে। গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও এর ব্যত্যয় ঘটাবেন না বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তারা।

ছাত্র সংসদ উপদেষ্টা মীর মুর্ত্তজা আলী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম গতিশীল করা, অরাজনৈতিক ছাত্র নেতৃত্ব সৃষ্টি করা এ নির্বাচনের লক্ষ্য। ছাত্র সংসদের মেয়াদকাল ১ বছর থেকে বাড়িয়ে ২ বছর করা হয়েছে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে একমাত্র গণ বিশ্ববিদ্যালয়েই রয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ।

/এস কে