• বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৮ ১৪২৫
  • ||
  • আর্কাইভ

‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় গভীর সংকটে নিমজ্জিত’

প্রকাশ:  ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১৬:৫৫
জাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমানে গভীর সংকটে নিমজ্জিত বলে অভিহিত করেছেন সাবেক উপাচার্য ও নবনির্বাচিত সিনেটর অধ্যাপক ড.শরীফ এনামুল কবির।সোমবার সকাল সাড়ে এগারোটায় উপাচার্য বরাবর লিখিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তিনি এই মন্তব্য করেন।সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি আরো জানান, ‘সেশনজ্যামের অভিশাপে শিক্ষার্থীদের জীবন অতিষ্ট। প্রতিটি বিভাগে সেশনজ্যাম বেড়েই চলেছে।

র‌্যাগিং নামক অপসংস্কৃতির নিষ্ঠুরতায় দিশেহারা প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা। আবাসন সমস্যা ও গণরুম সংস্কৃতির কারণে প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা লেখা পড়ায় মোটেও মনোযোগী হতে পারে না। মাদকের অভয়ারণ্য এখন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়। মাদকসেবন জ্যামিতিক হারে বেড়ে ভয়ংকর রূপ নিয়েছে। নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়েছে জাহাঙ্গীরনগর পরিবার।শিক্ষক-শিক্ষার্থী সম্পর্কের ব্যাপক অবনতি হয়েছে। জাকসু না থাকায় শিক্ষার্থীদের মধ্যেও নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টি হচ্ছে না। স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নেই বললেই চলে’। 

এছাড়া তিনি ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ’ এবং ‘বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল জোট’ থেকে নির্বাচিত সিনেটর শিক্ষক ও রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েটগণের পক্ষ থেকে অবিলম্বে উপাচার্য প্যানেল নির্বাচনের জোর দাবি জানিয়েছেন। 

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় অ্যাক্ট-১৯৭৩ এর ১১(১) ধারা অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিয়োগের জন্য সিনেট সদস্য কর্তৃক তিন সদস্যের প্যানেল (নামসূচি) মনোনয়নের জন্য দাবি জানান।

উল্লেখ্য ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচন অনুুষ্ঠিত হয়।