• শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

এক ঘটনায় এত মামলায় হাইকোর্টের বিস্ময়

প্রকাশ:  ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:৩৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের স্বাস্থ্যের বর্তমান অবস্থা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী রোববারের (১১ নভেম্বর) মধ্যে এ বিষয়ে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। রংপুর কারা ও মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষকে (সিভিল সার্জন) এ নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলেছেন আদালত।

একইসঙ্গে এই সময়ে রংপুর থেকে অন্য কোনো জেলায় স্থানান্তরের সময় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে যথাযথ নিরাপত্তা দিতে সরকারকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) পৃথক দুই আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আগামী রোববার এই রিট আবেদন দুটির পরবর্তী শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

এ দিন শুনানিতে আদালত এক ঘটনায় এত মামলা হওয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করেন। বলেন, ক্ষুব্ধ ব্যক্তিবাদে অন্য কেউ এত মামলা কেন করে।

আদালতে ব্যারিস্টার মইনুলের পক্ষে পক্ষে করেন অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী জিনাত হক।

বিশেষায়িত হাসপাতালে ব্যারিস্টার মইনুলের চিকিৎসা ও রংপুর আদালতে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা সরকারের নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে মইনুলের স্ত্রী সাজু হোসেন এ রিট দায়ের করেন।

রিটে স্বরাষ্ট্রসচিব, পুলিশের (মহাপরিদর্শক) আইজিপি, আইজি প্রিজন কারা কর্তৃপক্ষ ঢাকা, আইজি প্রিজন কারা কর্তৃপক্ষ রংপুর, সিভিল সার্জন ঢাকা, সিভিল সার্জন রংপুর, জেলা প্রশাসকসহ (ডিসি) আটজনকে বিবাদী করা হয়েছে।

গত ৩ নভেম্বর ব্যারিস্টার মইনুল রংপুর কারাগারে পাঠানো হয়। রংপুরে করা মানহানির এক মামলায় গত ২২ অক্টোবর ঢাকার উত্তরা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

রংপুরের বাসিন্দা মিলি মায়া বেগম ২২ অক্টোবর আদালতে মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন। ওই দিনই তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

/এসএম

ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন
apps